বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন

আল জয়নালের বিরুদ্ধে বোবার জমি দখলের অভিযোগ

শহর প্রতিনিধি: / ১০ জন পড়েছেন
রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

জাপা নেতা ও শিল্পপতি আল জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে আবারো বাক প্রতিবন্ধীর জমী দখলের অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও ভুক্তভোগীদের প্রাণনাশের হুমকী সহ বাড়িতে অনুপ্রবেশ করে লুটপাট চালিয়েছে তার সন্ত্রাসী বাহিনী। এতে করে বেশ আতংকের মধ্যে বসবাস করছে বাক প্রতিবন্ধী ওমর ফারুক ও তার স্ত্রী।
শুক্রবার (২৫ সেপ্টম্বর) সকাল ৮টায় শহরের চাষাঢ়া ২৯৬/৩ নং বঙ্গবন্ধু রোডস্থ সরকারী মহিলা কলেজ এর মূল ফটকের পিছনে ভুক্তভোগীদের বাসস্থানে অনুপ্রবেশ করে হামলা চালিয়েছে কয়েকজন সন্ত্রাসী। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী জমির মালিক বাক প্রতিবিন্ধ মো. ওমর ফারুক নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
ভুক্তভোগীদের অভিযোগে জানা গেছে, শহরের টানবাজার ৫৬/৩০ এস এম মালেহ রোডের মৃত রহিম বক্সের ছেলে আল জয়নালের সাথে র্দীঘদিন যাবত ওই জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এরআগেও এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। তবে অদৃশ্য শক্তি ও প্রভাব বিস্তার করে আল জয়নাল পার পেয়ে যায়। আশেপাশে জমিদখল নিয়েও বিভিন্নসময় আল জয়নালের সাথে দ্বন্ধ¦ চলে আসছে। তবে পুলিশের কাছে জয়নালের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকলেও প্রশাসন আইনগতভাবে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।
অভিযোগের বিবরনে ভুক্তভোগী জমির মালিক মো. ওমর ফারুক এর স্ত্রী নাজমা বেগম জানান, ওমর ফারুক একজন শারীরিক ও বাক প্রতিবন্ধী। শহরের চাষাড়া ২৯৬/৩ নং বঙ্গবন্ধু রোডে তার পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ৬ শতাংশ জমিতে তিনি বসবাস করে আসছেন। ভূমিদস্যু আল জয়নাল দীর্ঘদিন যাবত তার এই পৈতিক সম্পত্তি সহ বাড়ি ঘর জোর পূর্বকভাবে দখল দারিত্বের চেষ্টা চালাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় সকাল ৮টার দিকে আল জয়নাল এবং তার ২০/৩০ জন সন্ত্রাসী বাহিনী সার্ভেয়ার মনির মৃধা (২৫), মনির মির্জা (৩০), কবির (২০), কামাল (২০), জহির (২৩), খোকন (২৫), লিখন (২৫) কে সাথে নিয়ে তার বাড়িতে লাঠি, করাত, সাবল সহ দেশীয় অস্ত্র হামলা চালিয়ে এক লক্ষ টাকার মূল্যবান জিনিস লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় ওমর ফারুকের স্ত্রী নাজমা বেগমকেও মহিলা সন্ত্রাসী দিয়ে আটক করে শহরের আল জয়নাল ট্রেড সেন্টারে নিয়ে গিয়ে নির্যাতন করে মুক্তিপণ ও তার সম্পত্তি আল জয়নালের নামে লিখে না দিলে পরিবারের সকলকে হত্যার হুমকি দেয়।
এ বিষয়ে জানতে আল জয়নাল আবেদীনের মুঠোফোনে ব্যবহৃত নাম্বারে একাধিকবার কল করা হলে তিনি রিসিভ না করায় কোন মন্তব্য জানা যায়নি।
এ বিষয়ে নাজমা বেগম থানায় অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় তদন্তভার এসআই আনোয়ারকে দেয়া হয়েছে। বিষয়টি অবশ্যই গুরুত্ব সহকারে দেখবো। কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়।
তবে অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) আনোয়ার জানান, অভিযোগটি এখনও আমার হাতে আসেনি। আসামাত্র বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

আর্কাইভ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও খবর