মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১৯ অপরাহ্ন

 ৯০ কোটি টাকার নকল প্রসাধনী ও টেলিভিশন জব্দ: মালিকসহ আটক ৭

সোজা সাপটা নিউজ : / ২৪৫ জন পড়েছেন
বৃহস্পতিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে শিমরাইলে মুনস্টার মার্কেটিং প্রাইভেট লিমিটেড নামের একটি অবৈধ কারাখানায় অভিযান চালিয়ে প্রায় ৯০ কোটি টাকা মূল্যের বিপুল পরিমান নকল প্রসাধনী ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী জব্দ করেছে র‌্যাবের ভ্রম্যামান আদালত। বৃহস্প্রতিবার রাতে র‌্যাব-৩ এর গোয়েন্দা বিভাগ ও বিএসটিআয়ের সহযোগিতায় র‌্যাবের নিবার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট পলাশ কুমার বসুর নেতৃত্বে এই অভিযান চালানো হয়।
এ সময় কারখানার ভেতরে মিথানল ও স্পিরিটসহ মেয়াদোত্তীর্ণ ক্যামিকেল মিশিয়ে প্রস্ততুকৃত বিপুল পরিমান ফগ, সিগনেচার, হোভোগল্ড, কার্টন লিমা, ব্লুলেডি, জ্যাসমিন,গেমবটি, মিলিনিয়াম, কোবরা, ম্যাক্স, রয়েলমেরগিসহ বিশ্বের বহুল সমাদৃত নামিদামি ব্র্যান্ডের নকল প্রসাধনী সামগ্রী এবং সনি ব্রাবারিয়া, প্যানাসনিক ও এলজি ব্র্যান্ডের টেলিভিশন জব্দ করা হয়। যার মূল্য হবে প্রায় নব্বই কোটি টাকা। একই সামগ্রী দিয়ে এসব নামিদামি ইলেকট্রনিক্স পন্য তৈরি করে দেশের বাজারে বিক্রি করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। এসব নকল প্রসাধনী উৎপাদন ও বিপননের সাথে জড়িত কারখানার মালিক বেলায়েত হোসেনসহ কারাখানার মোট ৭ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে আটক করেছে র‌্যাব।
র‌্যাবের নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু জানান, মুনস্ট্যার মার্কেটি প্রাইভেট লিমিটেড কারাখানার মালিক বেলায়েত হোসেন র্দীঘদিন ধরে এই খারখানার ভেতরে বিশ্বের বিভিন্ন নামিদামি ব্যান্ডের প্রসাধনী সামগ্রী ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী উৎপাদন করে দেশের বাজারে বিক্রি করে আসছেন। যা মানুষের সাথে প্রতারণার শামিল। ২০১৭ সালে মেয়াদোত্তীর্ণ ক্যামিকেল দিয়ে একটি মাত্র মেশিন দিয়ে কোবরা, ফগ, ব্লুলেডি, সিগনেচার, হোভোগল্ডসহ বিভিন্ন দেশের নামিদামি কোম্পানীর লেভেল সাঁটিয়ে ছোট ছোট কন্টেইনার রিফিল করে বাজারজাত করে আসছে। দেশের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার চকবাজারসহ দেশের বিভিন্ন ছোট বড় শপিংমলের প্রসাধনীর দোকানে এসব নকলপন্য সরবরাহ করে মানুুষের সাথে প্রতারণা করে আসছে। এসব নকল প্রসাধনী ব্যবহার করে মানুষ স্বাস্থ্য ঝুকিতে পড়ছেন। মিথানল ব্যবহার করতে হলে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের লাইসেন্স এবং পরিবেশ লাইসেন্স বাধ্যতামূলক হলেও এই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ভ্রম্যামান আদালতকে কোন কিছুই দেখাতে পারেনি।
র‌্যাব সদর দপ্তরের নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু আরো জানান, কারখানার ভেতরে ও গুদামে প্রায় ৯০ কোটি টাকা মূল্যের অধিক নকল প্রসাধনী ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী জব্দ করা হয়েছে। এসব নকল পন্য যাতে দেশের বাজারে সরবরাহ করতে না পারে এজন্য কারখানার সিলিগালা করে দেয়া হয়েছে। একই সাথে কারখানার মালিকসহ গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে ৭৪ বিশেষ ক্ষমতা আইনে ও প্রতারণার অভিযোগ নিয়মিত মামলা দায়ের করা হবে।
তবে মুনস্টার মার্কেটিং প্রাইভেট লিমিটেড নামের এই প্রতিষ্ঠানের মালিক বেলায়েত হোসেন দাবি করেন, কারখানা পরিচালনা ও উৎপাদনের জন্য তার সকল প্রকার কাগজপত্র রয়েছে। কিন্তু ভ্রম্যামান আদালতের লোকজন কিছ্ইু দেখছেন না।

আর্কাইভ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও খবর